কলারোয়ায় মামলা করে বিপাকে এক সংখ্যালঘু পরিবার।। জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১, ২০২১

জুলফিকার আলী,কলারোয়া(সাতক্ষীরা)প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মারপিটের
মামলা করে বিপাকে পড়েছেন এক সংখ্যালঘু ু পরিবার। এঘটনায় বুধবার (৩০জুন) বিকালে ন্যায়-বিচার ও জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ওই পরিবারটি। লিখিত বক্তব্য উপজেলার গোয়ালচাতর খ্রিষ্টানপাড়ার সুনিল সরকারের মেয়ে কলেজ পড়–য়া ছাত্রী সপ্না সরকার বলেন, তারা ভাই-বোন কলেজে পড়া শুনা করেন। বাবা ও মা বাড়িতে থাকেন। লকডাউনের কারনে তারা বাড়ীতে রয়েছেন।

গত ৫মে সকাল ১১টার দিকে পূর্বশত্রুতার জেরধরে একই গ্রামের প্যাট্রিক সরকার,
ছত্তর সরকার, রাফায়েল সরকার, মধুমালা সরকার, সুসুমা সরকার, সোনালী সরকার দলবন্ধ হয়ে তাদের বাড়ীর যাতায়াতের পথ ঘেরা বেড়া নিয়ে বন্ধ করে
দেয়।

এঘটনা নিয়ে প্রতিবাদ করাতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে দা লাঠিসোটা নিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায়
হামলা চালিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে সুনিল সরকার (৪৫), লুইজা সরকার (৩৮),
সপ্না সরকার (২২) ও রকি সরকার (২০) কে জখম করে। এর মধ্যে গুরুত্বর জখম অবস্থায়

সুনিল সরকার (৪৫), লুইজা সরকার (৩৮) কে উদ্ধার করে কলারোয়া সরকারি
হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। এঘটনায় কলারোয়া থানায় তাদের ৬জনের
বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়। এই মামলায় আসামীরা আদালত থেকে জামিন
নিয়ে বাড়ীতে এসে মামলা তুলে নিয়ে হুমকি দিচ্ছে।

এছাড়া তাদের ভাই-বোনকে
রাস্তায় এক পেলে মারপিটকরাসহ জীবননাশের হুমকি ধামকি দেয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার
(২৯জুন) সকালে আসামী প্যাট্রিন সরকার, ছত্তর সরকার, রাফায়েল সরকার এ হুমকি প্রদান করে। এসকল ঘটনা উল্লেখ্য করে তারা সংবাদ সম্মেলনে ওই সন্ত্রাসীদের হাত থেকে রক্ষা পেতে জেলা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।