জয়পুরহাটে চাঁদাবাজির অভিযোগে পুলিশের এস আই বরখাস্ত

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ১:৫৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ১২, ২০২১

আবু মুসা, জয়পুরহাট: ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কর্মস্থলের বাইরে যাওয়া এবং সড়কে যানবাহন আটকে চাঁদাবাজি করার অভিযোগে জয়পুরহাটের কালাই থানা পুলিশের এক উপপরিদর্শককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় তাঁর অপর সহযোগীকে আটক করেছে পুলিশ

সাময়িক বরখাস্ত হওয়া ওই পুলিশ কর্মকর্তার নাম রাফি হাসান। তিনি জেলার কালাই থানার উপপরির্দশক হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। তাঁর সঙ্গে থাকা অপর সহযোগি জয়পুরহাট সদর উপজেলার আমদই ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজের অফিস সহকারী মামুনুর রশিদ।এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছ।

পাঁচবিবি থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সন্ধ্যায় রাফি হাসান সাদা পোশাকে তাঁর সহযোগী মামুনুরকে সঙ্গে নিয়ে পাঁচবিবি উপজেলার আটাপুর ইউনিয়নের মাঝিনা নামক স্থানে মাস্ক না পরায় লোকজনের কাছ থেকে টাকা আদায় করছিলেন। এ সময় তাঁরা ওই সড়কে একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশা আটকান। ওই অটোরিকশায় ফেনসিডিল আছে এমন অভিযোগ করে চালককে একটু দূরে নিয়ে গিয়ে এক লাখ টাকা দাবি করেন রাফি ও তাঁর সহযোগী। এতে স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ হলে তাঁরা ঘটনাটি পুলিশকে জানান।

বিষয়টি বুঝতে পেরে এস আই রাফি ও তাঁর সহযোগী মোটরসাইকেল নিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয় লোকজন তাঁদের দুজনকে ধাওয়া করে আটকান। পরে পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পলাশ চন্দ্র দেব ঘটনাস্থল পৌঁছে তাঁদের দুজনকে থানায় নিয়ে আসে।

পাঁচবিবি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পলাশ চন্দ্র দেব সাংবাদিকদের জানান এস আই রাফি হাসান পাঁচবিবির থানা এলাকায় ঢুকে যানবাহন আটকিয়ে তল্লাশি করছিলেন। সেখানকার স্থানীয় লোকজন তাঁকে আটকান। আমরা গিয়ে এস আই ও তাঁর সহযোগীকে থানায় নিয়ে এসেছি।’ কালাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম মালিক বলেন, ‘রাফি হাসান কাউকে কিছু না জানিয়ে পাঁচবিবি থানা এলাকায় গিয়েছিলেন। কী কারণে তিনি সেখানে গিয়েছিলেন, সেটি জানি না।’

জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভূঞা সাংবাদিকদের বলেন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই নিজ কর্ম এলাকার বাইরে যাওয়ার অভিযোগে কালাই থানার এস আই রাফি হাসানকে রাতেই প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তার সহযোগীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনার তদন্তে ইতিমধ্যে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে।