পুলিশ নির্যাতনে মৃত্যুর শিকার, লাশ নিয়ে বিক্ষোভ 

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 8:43 PM, January 3, 2021

নিউজ ডেস্কঃ বরিশালে পুলিশ নির্যাতনে রেজাউল করিম রাজার মৃত্যুর প্রতিবাদে বরিশালের রাস্তা অবরোধ করেছে স্থানীয়রা। বিক্ষোভকারীরা সিটি গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) এসআই মহিউদ্দিন মাহিরের বাড়িতেও ইট-পাটকেল ছুড়ে মারেন।

রবিবার (৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় বরিশাল নগরীর সাগরদী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, ময়নাতদন্ত শেষে রেজাউল করিমের স্বজনরা রেজার লাশ নিয়ে বাড়িতে আসেন। এ সময় বিক্ষুব্ধ স্থানীয়রা রাজার লাশ নিয়ে সাগরদী মাদ্রাসা সংলগ্ন মহাসড়কে গিয়ে দোষী পুলিশ সদস্যের বিচার দাবি করে। তারা রাস্তা অবরোধ করে আগুন ধরিয়ে দেয়। ফলে,বরিশাল শহরে চলাচলকারী ছোট গাড়ি ছাড়াও দূরপাল্লার যাত্রী ও মাল পরিবহন বন্ধ ছিল। পরে সন্ধ্যা ৬ টার পরে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানার সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে পরিস্থিতি শান্ত করেন। এর পরে যান চলাচল স্বাভাবিক থাকে।

বিক্ষোভকারীরা শেরেবাংলা রোড এলাকার বাসিন্দা এবং সাগরদী এলাকার এসআই মহিউদ্দিন মাহির বাড়ির সামনেও যায়। এ সময় বিক্ষোভকারীরা মহিউদ্দিন মাহিরের বাসভবনকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। ফলে, তার বাড়ির ১০ টি জানালা গ্লস ভেঙে যায় ।

স্থানীয়দের মতে মহিউদ্দিন মাহি অন্যায়ভাবে রেজা কে ধরে তাকে নির্যাতন করে হত্যা করে।এছাড়াও  তিনি ইতিমধ্যে সাগরদী এলাকায় বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন জায়গায় ত্রাসের সৃষ্টি করেছেন। এই ক্ষোভের মধ্যে থেকে এখন সবাই এসআই মহিউদ্দিনের বিচার দাবি করছেন।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম জানান, ময়নাতদন্ত শেষে রেজার লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে তারা লাশ নিয়ে রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে। এতে মানুষের দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত এবং সেই রাস্তায় যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পরে অভিযোগটি সত্য প্রমাণিত হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য যে, বরিশাল ল কলেজের ছাত্র রেজাউল করিম রেজাকে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর পর বরিশাল মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মহিউদ্দিন মাহির নির্যাতনের শিকার হন। তার পর থেকে পরিবার ও আত্মীয়স্বজন মহিউদ্দিন মাহি সহ সকল নির্যাতিত পুলিশ সদস্যের বিচার দাবি করে আসছেন।