পরিবারের অভিযোগ হত্যা, অথচ মিমাংশা করে দিলেন চেয়ারম্যান

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 10:11 PM, February 22, 2021

কাজী রাশেদ,চান্দিনা: মায়ের সুস্পষ্ট অভিযোগ ও আহাজারি থাকা সত্বেও আইনগত বিচার না হয়ে ইউনিয়ন পরিষদে মিমাংসা হয়ে
লাশ দাফন করেছে পরিবার।

ঘটনার শিকার কুমিল্লার চান্দিনার উপজেলার কেরণখাল ইউনিয়ন পরিষদের রামেশ্বর গ্রামের সিরাজ মিয়ার মেয়ে রোমানা আক্তার(১৯)। রোমানাকে প্রায় ৪ মাস পূর্বে বিয়ে দেয় কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার কালাকচুয়া গ্রামের মোঃ সোলাইমানের ছেলে আল আমীনের সাথে।

আল আমীন পেশায় গাড়ি চালক।এর মধ্যে দুই মাসের অন্তসত্বা ছিল বলে জানা যায়।রোমানা বেশি অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বামীর বাড়ির লোকজন প্রথমে কুমিল্লার একটি হাসপাতালে পরে ঢাকা নেয়ার পথে রোবরবার রাত ১২টার পর চান্দিনার হাড়িখোলা এলাকায় গাড়িতে মারা যায়।।পরে তার লাশ তার বাবার বাড়ি চান্দিনায় নিয়ে যায়।

রোমানা মা জানান, তার মেয়েকে হাত পা বেঁধে মুখে তোয়ালে দিয়ে চেপে মারা হয় এবং তাকে গর্ভপাত ঘটনার ঔষধ খাওয়ানো হয়। এতে তার পেট ফুলে যায় । এ ছাড়া রোমানার মা আরো জানান, তার মেয়ের শশুর বাড়িতে কয়েক দিন অসুস্থ জানতে পেরে গত শুক্রবার তার বাবা দেখতে গেলে তাকে মারধর করে রোমানার শশুর বাড়ির লোকজন।

এদিকে রোমানার ভাই জানান, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এ ঘটনা মিলমিশ করে দিয়ে লাশ দাফন করতে বলেছেন।

এব্যাপারে জানতে চাইলে ওই পরিষদের চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ কিছু জানেন না বলে অস্বীকার করেন। চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত ) মোঃ ওবাইদুল হক জানান, আমরা ৯৯৯ এ কল পেয়ে মেয়ের বাবার বাড়িতে গিয়ে ছিলাম, ওখানে আমাদের কাছে কেউ অভিযোগ করেনি।