ময়মনসিংহের ভালুকায় কালবৈশাখী ও শিলাবৃষ্টির তান্ডবে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ৭:৪৭ অপরাহ্ণ, মার্চ ৩০, ২০২১

জুবায়ের খন্দকার, ময়মনসিংহঃ- ময়মনসিংহের ভালুকায় কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টির তান্ডবে উঠতি বোরো ফসল ও গাছপালার ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। ২৯শে মার্চ সোমবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার উপর দিয়ে এই কালবৈশাখী ঝড়ের পাশাপাশি ব্যাপক শিলাবৃষ্টি হয়।

যার দরুন উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে বিআর-২৮ জাতের উঠতি বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এছাড়াও আমের মুকুলের পাশাপাশি সব্জি বাগানেরও ব্যাপক ক্ষতিসহ বিভিন্ন এলাকায় গাছ ও ডালপালা ভেঙে রাস্তায় চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়েছে।

ভালুকা প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম শাহজাহান সেলিম বলেন-গতকাল রাতের শিলাবৃষ্টির দরুন ভান্ডাব গ্রামে অবস্থিত আম বাগানের বারি, হিমসাগর, আম্রপালি, ফজলীসহ নানা প্রজাতীর প্রায় ১১০টি গাছের প্রায় অর্ধেকেরও বেশী গুটি ঝড়ে পড়ে গেছে।

উপজলোর ধীতপুর গ্রামের শিক্ষক আক্কাছ আলী জানান, করোনার কারনে স্কুল বন্ধ থকায় এবার তিনি তর জমিতে কমলা, মাল্টা ও আম বাগান করেছিলেন। কিন্তু বিধি বাম। তার চাষকৃত শতাধিক গাছের প্রায় ৭০ শতাংশ গুটি শিলাবৃষ্টিতে ঝড়ে পড়ে গেছে।

এদিকে ভালুকা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নারগিস আক্তার বলেন- ভালুকা পৌরসভা, রাজৈ, বিরুনীয়া, ধীতপুর ইউনিয়নের উপর দিয়ে শিলাবৃষ্টি ও কালবৈশাখী ঝড় বয়ে গেছে। তবে ফসলের তেমন কোন ক্ষতি হয়নি।তবে রাত সাড়ে ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত প্রায় এক ঘন্টায় বৃষ্টিপাত হয় ৩১ মিলিমিটার।

অপর দিকে উপজলো নির্বাহী কর্মকর্তা সালমা খাতুন বলেন-ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে তেমন কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তবে উপজেলার নয়নপুর ও ধীতপুর এলাকা থেকে ২/১জন ফোন করেছিলো শিলাবৃষ্টির দরুন ফসলের ক্ষয়-ক্ষতির ব্যাপারে।