সেতুর অভাবে হাজারো মানুষের ভোগান্তি

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 11:57 AM, February 12, 2021

শাহরিয়ার মিল্টন, শেরপুর : শেরপুরের নকলা উপজেলায় একটি সেতুর অভাবে ৫টি গ্রামের মানুষের ভোগান্তি চরমে। নকলা উপজেলার হাতিমারা ও চরমুধুয়া নামাপাড়া এলাকার মধ্যবর্তী স্থানে মৃগী নদীর উপর জামালপুর সদর উপজেলার ৩টি
গ্রাম সহ ৫ টি গ্রামের মানুষের একটি সেতুর অভাবে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এসব গ্রামের হাজারো মানুষ একটি সেতুর অভাবে মৃগী নদীর ওপর নির্মিত বাঁশের ঝুঁকিপূর্ণ সাঁকো দিয়ে চলাচল করছে।

স্থানীয়রা জানান, নকলা ও জামালপুর সদর উপজেলার মানুষ চায় এই নদীতে একটি সেতু নির্মাণ হোক। চলাচলের জন্য প্রতিবছর বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করা হলেও বন্যার সময় পানির তোড়ে সাঁকো অকেজো হয়ে যায়। ফলে এসব গ্রামের মানুষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ সময় নৌকা দিয়ে এখানকার মানুষ চলাচল করে। এতে করে এসব এলাকার মানুষ চিকিৎসা, যাতায়াত ও উৎপাদিত
কৃষিপণ্য বাজারজাত করাসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত ।

তাদের ছোট ছোট ছেলে,মেয়েরা স্কুলে গেলে মা বাবার কাঁধে উঠে বাঁশের সাঁকোর উপর দিয়ে যেতে হয়। সেতুর আভাবে এই দুই উপজেলার হাজার হাজার মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। মানুষ ঝুঁকি নিয়ে বাঁশের সাঁকো দিয়ে উৎপাদিত পণ্য ও মালামাল পারাপার করছে। ফলে ফসলের ন্যায্যমূল্য হতে বঞ্চিত তারা। বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। নকলা উপজেলার চন্দ্রকোনা ইউপি চেয়ারম্যান সাজু সাঈদ সিদ্দিকি জানান, মৃগী নদীর উপর সেতু নির্মাণ করা অতীব প্রয়োজন।

এখানে একটি সেতু নির্মাণের জন্য এখানকার মানুষের দীর্ঘ দিনের প্রাণের দাবী হয়ে উঠেছে। সংশ্লিষ্ট বিভাগের সুনজর দেওয়া প্রয়োজন।