৬০ কোটি অনুমোদন বিনামূল্যের বই ছাপাতে

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ৫:১৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০২১

নিউজ ডেস্ক: ৬০ কোটি অনুমোদন বিনামূল্যের বই ছাপাতে । বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ করে আসছে বর্তমান সরকার । এরই ধারাবাহিকতায় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অধীন জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড -এনসিটিবি- কর্তৃক ২০২২-শিক্ষাবর্ষের মাধ্যমিক -বাংলা ও ইংরেজি ভার্সন-, ৮ম ও ৯ম শ্রেণী- এসএসসি ভোকেশনাল- ইবতেদায়ী -৩য়, ৪র্থ ও ৫ম শ্রেণি-দাখিল -৮ম ও ৯ম শ্রেণী- শ্রেণী এবং দাখিল ভোকেশনাল স্তরে বই দেবে।

আর এ লক্ষ্যে মোট ১ কোটি ৬৮ লক্ষ ৩০ হাজার ৯৭১ কপি বই বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে। এজন্যই ৬টি দরদাতা প্রতিষ্ঠান থেকে ৫৯ কোটি ৩৬ লক্ষ ৮১ হাজার ৮৪৪ টাকায় মুদ্রণ, বাঁধাই এবং সরবরাহের ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

২৫ আগস্ট বুধবার সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত ক্রয় কমিটির এক ভার্চ্যুয়ালী সভায় এ অনুমোদন দেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে বই বিতরণ করে আসছে। আর এরই ধারাবাহিকতায় শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বই বিতরণের জন্যই- ৬০ কোটি টাকা অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক তিন পার্বত্য জেলার জন্য-১শ ওয়াট পিক ক্ষমতা সম্পন্ন- ৪০ হাজার সোলার হোম সিস্টেম-ও ৩২০-ওয়াট পিক ক্ষমতাসম্পন্ন-২ হাজার ৫০০ সোলার কমিউনিটি সিস্টেম ‘বাংলাদেশ মেশিন টুলস ফ্যাক্টরী লি: থেকে ২০৪ কোটি ৩৩ লক্ষ- ২৫ হাজার টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

সেই সঙ্গে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের গ্রীন সিটি আবাসিক কমপ্লেক্সে ১২৫০-বর্গফুটের একটি-২০তলা ভবন এবং আরেকটি-১৬তলা ভবনে-১৯৬টি ইউনিটের পর্দা সরবরাহ এবং স্থাপন কাজও ক্রয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ৪ কোটি ৬৭ লক্ষ ৫৯ হাজার ৫৪৫ টাকা।

আর বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডা: করপোরেশনকে –বিসিআইসি- কাতার থেকে রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে দ্বিতীয় লটে ৩০-হাজার মে: টন প্রিল্ড ইউরিয়া সার ১১৭-কোটি ৬৫ লক্ষ ৬৫ হাজার ৯৯৫ টাকায় আমদানিরও অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে সৌদি আরব থেকে তৃতীয় লটে ৩০-হাজার মে: টন বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার-১১৭ কোটি ৪৪ লক্ষ-২৫ হাজার ২৫৫ হাজার টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে আজকের এই সভায়

এদিকে জনশুমারী ও গৃহগণনা-২০২১’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ডিজিটাল জনশুমারীর জন্য ৩ লক্ষ ৯৫ হাজার ট্যাব ও ৭২টি এসি কেনবে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো –বিবিএস-। ফেয়ার ইলেকট্রনিকস লি: থেকে। আর  কেনার জন্য ৫৪৮-কোটি ৭৩ লক্ষ ১৭ হাজার ৭০ টাকায় ক্রয়ের প্রস্তাব করা হয়েছিল। তবে এ প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়নি দরপত্রে কিছু ত্রুটি খুঁজে পাওয়ার ফলে তবে এটা রিটেন্ডারের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, ই-জিপিতে ‘ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স লি:’ ৫৪৮-কোটি টাকা এবং ‘ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডা: লি:’ ৪০২-কোটি টাকায় টেন্ডার সাবমিট করেছে। ই-জিপির নিয়মানুযায়ী সর্বনিম্ন দরদাতা কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকে। কিন্তু বিবিএস-১৪৬ কোটি টাকা বেশি দরদাতা ফেয়ার ইলে: লি:কে এ কাজ দিতে চেয়েছিল।