দশটি প্রতিষ্ঠানে এক লাখ টন চাল আমদানির অনুমতি

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 12:53 PM, January 5, 2021

বিষেশ প্রতিনিধি: সরকার দেশের বেসরকারী খাতের ১০ টি সংস্থাকে দেশের চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে -১ লক্ষ ৫ হাজার টন সিদ্ধ করা চাল আমদানির অনুমতি দিয়েছে।

খাদ্য মন্ত্রণালয় শর্তসাপেক্ষে এলসি খোলার ১০ থেকে ৩০ দিনের মধ্যে চাল আমদানির অনুমতি দেয় যা সর্বোচ্চ পাঁচ শতাংশ ভাঙা দানাদার বাসমতি নয়।৩ জানুয়ারি খাদ্য মন্ত্রনালয় থেকে বাণিজ্য মন্ত্রনালয় কে সচিবের কাছে অনুমতি পত্রের চিঠি পাঠানো হয়।

খাদ্য মন্ত্রনালয় সূত্রে জানা গেছে, নির্ধারিত তফসিলে আবেদনকারীদের কাছ থেকে যাচাই ও বাছাইয়ের পরে শর্তসাপেক্ষ চাল আমদানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে।বরাদ্দ ইস্যুর সাত দিনের মধ্যে অবশ্যই ঋণপত্র (এলসি) খুলতে হবে। তাৎক্ষণিকভাবে খাদ্য মন্ত্রনালয়কে অবহিত করতে হবে।

যে ব্যবসায়ীদের ৫ হাজার টন বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে, তাদের এলসি খোলার ১০ দিনের মধ্যে ৫০ শতাংশএবং ২০ দিনের মধ্যে পুরো দেশের চাল বাজারজাত করতে হবে।

মন্ত্রনালয় আরও বলেছেন যে যেসব সংস্থাগুলিকে ১০.০০০ থেকে ২০.০০০ টন বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে তাদের এলসি খোলার ১৫ দিনের মধ্যে অর্ধেক এবং ৩০ দিনের মধ্যে স্থানীয়ভাবে সমস্ত চাল বাজারজাত করতে হবে বলেও শর্ত দিয়েছে মন্ত্রনালয়।

আমদানির জন্য অনুমোদিত সংস্থাগুলি হল: জয়পুরহাটের হেনা এন্টারপ্রাইজ ১০ হাজার টন, দিনাজপুরের রেনু কনস্ট্রাকশন ১৫ হাজার টন, খুলনার কাজী সোবহান ট্রেডিং কর্পোরেশন ১০ হাজার টন, বগুড়ার আলাল এগ্রো ফুড প্রোডাক্ট ১০ হাজার এবং আলাল এন্টারপ্রাইজ পাঁচ হাজার টন, নওগাঁর আকাশ এন্টারপ্রাইজ ১০ হাজার টন।

ঘোষ অটোমেটিক রাইস মিলকে ১৫,০০০ টন, মেসার্স, নুরুল ইসলাম ১০,০০০ টন এবং জগদীশ চন্দ্র রায় ১০,০০০ টন আমদানি করার অনুমতি পেয়েছেন।উল্লেখ্য, বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকার চালের আমদানি শুল্ক কমিয়েছে। চালের আমদানি শুল্ক ৬২.৫% থেকে কমিয়ে ২৫% করা হয়েছে।

দেশের বাজারে চিকন চালের দাম এখন ৫০ কেজি ৩,২০০ থেকে ৩,৪০০ টাকা, যা সাম্প্রতিক বছরগুলিতে সর্বোচ্চ।সূক্ষ্ম চালের খুচরা মূল্য প্রতি কেজি ৬৪ থেকে ৬৬ টাকার মধ্যে। মাঝারি ও মোটা চালের দামও বেড়েছে উল্লেখ্য, চালের দামও বেড়েছে।