সানার হিজাব ও বলিউড ত্যাগ নিয়ে যা বললেন মুফতি আনাস

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 2:05 PM, December 20, 2020

বিনোদন ডেস্কঃ প্রাক্তন অভিনেত্রী সানা খান বলিউড ছেড়ে মুফতির সহধর্মীনি হয়ে আলোচনায় রয়েছেন। তার বলিউডের প্রস্থান, ইসলামী জীবনধারা এবং স্ক্রিনিং সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। অক্টোবরে বিনোদন জগত থেকে বিদায় নেওয়ার ঘোষণার পর নভেম্বরে গুজরাট মুফতি আনাস সাঈদকে বিয়ে করেছেন সানা এবং তার পর থেকে নেটিজেনরা বারবার আনাস ও সানার সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। আনাস সোশ্যাল মিডিয়ায়ও ট্রলড হয়।

অবশেষে গুজরাটের মাওলানা আনাস সাঈদ সানার বিনোদন জগত এবং স্ক্রিনিং সম্পর্কে মুখ খুললেন। আনাস  দাবি করেছেন যে সানা খানের বিনোদন জগত ছেড়ে চলে যাওয়ার ক্ষেত্রে তাঁর কোনও হাত নেই। আনস প্রথমবারের মত সর্বভারতীয় গণমাধ্যমের সাথে একটি সাক্ষাৎকারে মুখ খুললেন। “আমি সানাকে কখনই একটি নির্দিষ্ট জীবনযাপন করতে বাধ্য করি না,” তিনি বলেন।

সানা-৬ মাস আগে ইনস্টাগ্রামে বলেন যে তিনি হিজাব পরবেন। লোকেরা ভেবেছিল এটি মহামারীর কারণেই হতে পারে। তবে সানা নিজেকে সর্বদা কর্মক্ষেত্র থেকে আলাদা রাখতে চেয়েছিলেন। আমি ভেবেছিলাম তাকে কিছুটা সময় দেওয়া উচিত। তবে হঠাৎ সে বলে উঠে যে সে বিনোদনের জগত ছেড়ে দিবে। আমি কিছুটা হতবাক হয়ে গেলাম।

আনাস সাঈদ আরও বলেছেন, “আমি ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেছি, আমি সানাকে বিয়ে করতে চাই এবং তিনি আমার প্রার্থনা শুনেছিলেন। আমি মনে করি না যে আমি যদি অন্য কাউকে বিয়ে করলে আমি এত সুখী হতাম। মুফতি সানা সম্পর্কে বলেন, তিনি নিজেও সম্পূর্ণ নন। তবে তিনি একজন আধ্যাত্মিক, ক্ষমাশীল এবং স্বচ্ছ হৃদয়বান মানুষ।

আমি সবসময়ই এমন একটি মেয়েকে চাইতাম যে আমার পরিপূরক হবে এবং আমাকে সম্পূর্ণ করবে। লোকেরা এখনও আমাকে জিজ্ঞাসা করছে, আমি কীভাবে এক অভিনেত্রীকে বিয়ে করলাম? যারা এ জাতীয় প্রশ্ন করছেন তারা খুব সংকীর্ণ মনের মানুষ। এটি আমার ব্যক্তিগত জীবনের সিদ্ধান্ত  এবং এ সম্পর্কে কারও মন্তব্য করা উচিত নয়। লোকেরা মনে করতে পারে যে আমাদের মধ্যে কোনও মিল নেই, তবে আমরা জানি যে আমরা কতটা একে অপরের সাথে সম্পূরক ও সামঞ্জস্যপূর্ণ।