অলৌকিকভাবে, লাবনী এখন ছেলে

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ১:১৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০২১

নিউজ ডেস্ক: অলৌকিকভাবে, লাবনী এখন ছেলে। বয়স পনের, নাম লাবনী আক্তার। ২০২১-সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন। হঠাৎ করেই অলৌকিকভাবে মেয়ে থেকে ছেলেতে পরিনত হয়ে গেল সে। টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার মির্জাপুর ইউপি নঠুরচর পশ্চিম পাড়া গ্রামে এ চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে।

৭ মাস আগে তার শারীরিক পরিবর্তন ঘটলেও গেল ৮ অক্টোবর শুক্রবার সকাল থেকে এ ঘটনাটি জানাজানি হয়। এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে তোলপাড়ি এবং আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। মেয়ে থেকে ছেলেতে রূপান্তরিত হওয়া লাবনী আক্তারকে একনজর দেখতে প্রতিদিন দূর-দূরান্ত থেকে অসংখ্য মানুষ ভিড় করছেন তাদের বাড়িতে।

লাবনীর বাবা বলেন, তার মেয়ে এবার উপজেলার ফকির মরিয়ম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষা দেবে। গত বৃহস্পতিবার তিনি তার স্ত্রীর কাছ থেকে জানতে পারেন, যে তার মেয়ে লাবনীর হঠাৎ শারীরিক পরিবর্তন হয়ে ছেলেতে রূপান্তরিত হয়েছেন। পরে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে মানুষের মুখে মুখে চারদিকে জানাজানি হয়ে যায়। এরপর থেকেই দিনরাত মানুষ ভিড় করছেন তাকে একবার দেখার জন্য। এখন তার শারীরিক গঠন পুরুষের মতো। এ ছাড়াও চেহারাতেও কিছুটা পরিবর্তন এসেছে।

লাবনীর বাবা জানান, ছেলেতে রূপান্তরিত হওয়ার পর তার নাম রাখেন আব্দুলাহ জিসান।

এ ব্যাপারে লাবনী আক্তার জানান, সে গত ৭ মাস পূর্ব থেকেই এমন কিছু ঘটে চলেছে বলে আন্দাজ করতে পারে। কিন্তু লোক-লজ্জায় তখন কিছু বলতে পারেননি।

লাবনীর মা জানায়,৬ মাস আগে লাবনী আক্তারের বিয়ে ঠিক করা হয় একই উপজেলার মাকুলা গ্রামে। তখন লাবনী আক্তার বিয়ের অসম্মতি প্রকাশ করে এবং তার রূপান্তরিত হওয়া ঘটনাটি বললে তিনি প্রথমে বিশ্বাস করেননি। পরে তিনি সবকিছু দেখে শুনে বিশ্বাস করেন।

তিনি আরও বলেন, আল্লাহ তাকে মেয়ে থেকে ছেলে বানিয়ে দিয়েছে। আগে তাদের ২ মেয়ে ছিল। আর এখন ১ ছেলে ও ১ মেয়ে হওয়ায় তা‍রাও খুশি।

এ বিষয়ে গোপালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আলিম আল রাজি জানান, আমাদের দেশে মাঝে-মধ্যেই এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। এটা সাধারণত হরমোন পরিবর্তনের কারণে ঘটে থাকে।