নিউজিল্যান্ডে প্রধানমন্ত্রীর বিয়ে বাতিল হওয়ায় সংক্রমণ বাড়ছে

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ৮:৪৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নিউজিল্যান্ডে, করোনাভাইরাসের একটি নতুন স্ট্রেন, ওমিক্রন, সংক্রমণের বৃদ্ধি ঘটিয়েছে।

পরিস্থিতি সামাল দিতে দেশটির ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কিউই সরকার।

নিষেধাজ্ঞার কারণে কিউই প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন তার বিয়ে বাতিল করেছেন।
রোববার (২৩ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্প্রতি একটি বিয়েতে যোগদানকারী নয়জনের দেহে ওমিক্রনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এরপর রবিবার মধ্যরাত থেকে কিউই প্রশাসন মুখোশ ব্যবহার এবং জনসমাবেশে কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

প্রধানমন্ত্রী জ্যাসিন্ডা আরডার্ন বলেছেন, সংক্রমণ ঠেকাতে আরও বেশি লোককে মাস্ক পরতে হবে। বার, রেস্তোরাঁ এবং বিবাহের মতো ঘরোয়া অনুষ্ঠানে ১০০ জনের বেশি লোক যোগ দিতে পারবেন না। তিনি আরও বলেন, এসব ভেন্যুতে যদি ভ্যাকসিন পাস ব্যবহার না করা হয় তাহলে উপস্থিতির সীমা ২৫ জনে নামিয়ে আনা হবে।

নিজের বিয়ে প্রসঙ্গে কিউই প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি বিয়ে করছি না। যারা একই পরিস্থিতিতে পড়েছে তাদের জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

যদিও জেসিন্ডা আরডার্ন তার বিয়ের তারিখ প্রকাশ করেননি। শিগগিরই তার বিয়ের আয়োজন করা হতে পারে বলে গুঞ্জন রয়েছে।

জনপ্রিয় টেলিভিশন উপস্থাপক ক্লার্ক গেফোর্ডের সাথে কিউই প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্নের বাগদান হয়েছে দুই বছরেরও বেশি আগে। এরপর তাদের বিয়ের পরিকল্পনা করা হলেও নানা কারণে তা পিছিয়ে যায়। নেভ নামে তাদের একটি মেয়ে রয়েছে।

২০১৬ সালের জুনে তার প্রথম সন্তানের জন্ম দেন। বিশ্বের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো একজন মা প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। প্রথমটি ছিলেন পাকিস্তানের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো।