আসামে সকল সরকারী মাদ্রাসা বন্ধ এবং নিষিদ্ধ হলো শিক্ষা বোর্ড

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 9:22 PM, December 31, 2020

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ আসামের রাজ্য বিজেপি সরকার রাজ্যের সমস্ত সরকারী মাদ্রাসা বন্ধ করে সাধারণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে রূপান্তর করার জন্য একটি বিল পাস করেছে।

বুধবার কংগ্রেস এবং অন্যান্য বিরোধী দলগুলির বিক্ষোভের মুখে বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশনে এই বিলটি পাস হয়।

বিরোধীদের বিক্ষোভ ও আপত্তি উপেক্ষা করে বৈঠকে আসামের শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বিলটি উত্থাপন করেন।

বিল অনুসারে, আসাম মাদ্রাসা শিক্ষা (প্রাদেশিককরণ) আইন, ১৯৯৫ এবং আসাম মাদ্রাসা শিক্ষা (কর্মীদের নিয়োগের প্রাদেশিককরণ এবং মাদ্রাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পুনর্গঠন) আইন, ২০১৮ বাতিল করা হবে। আসাম মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডকেও বিলের আওতায় নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।

এর আগে আসামের বিজেপি সরকার সরকারী মাদ্রাসাগুলির পাশাপাশি সংস্কৃত টোলগুলো বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। তবে বুধবার বিলে সংস্কৃত টোল বন্ধের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়নি।

এর আগে শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেছিলেন যে আসামে প্রায় ৬০০ মাদ্রাসা বন্ধ করার রাজ্য সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে।

তিনি আরও বলেন যে আমরা এই প্রতিষ্ঠানগুলো সাধারণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রূপান্তর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কোরআন সরিয়ে বাইবেল এবং ভগবদ গীতাকে স্থান দিতে হবে। সাম্য প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

এখানে অনেক ছোট ছোট ধর্ম রয়েছে। সাম্য প্রতিষ্ঠার সর্বোত্তম উপায় হ’ল কুরআনের বিষয় মুছে ফেলা।

১৯৩৪ সালে আসামের প্রধানমন্ত্রী স্যার সৈয়দ সাদুল্লাহর নেতৃত্বে যখন মুসলিম লীগ সরকার ক্ষমতায় ছিল তখন মাদ্রাসা শিক্ষার সূচনা হয়েছিল, সেই সময়ে রাজ্য মাদ্রাসা বোর্ডও গঠন করা হয়েছিল।

এমনকি ম্যাট্রিক পর্যন্ত সাধারণ কোর্সেও ৫০ নম্বরের একটি অধ্যায়ে কোরআন শিক্ষা দেওয়া হয়।

এই নতুন আইনের ফলে সমস্ত মাদ্রাসা বন্ধ হয়ে যাবে এবং এ জাতীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে সাধারণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে রূপান্তরিত করা হবে।