নিষেধাজ্ঞা বাড়ল সৌদিতে-দুশ্চিন্তায় প্রবাসীরা

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 5:07 PM, February 14, 2021

আন্তর্জাতীক ডেস্ক:সৌদিতে কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস মহামারির দ্বিতীয় তরঙ্গ রুখতে ১০ দিনের নিষেধাজ্ঞার সময়সীমা আরো ২০ দিন বাড়ানো হয়েছে। সে কারনে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন সৌদিতে থাকা প্রবাসীরা।

সম্প্রতি দ্বিতীয় দফায় বিশ্বব্যাপী করোনার সংক্রমণ ও সৌদি আরবে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার কারনে এবং করোনা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিধিনিষেধ পালনে ঢিলেভাব দেখা যায়। এতে গত ৪ ফেব্রুয়ারী রাত ১০টা থেকে পরবর্তী ১০ দিনের জন্য নিম্নোক্ত বিধিনিষেধসমূহ মেনে চলার জন্য সৌদি কর্তৃপক্ষ নির্দেশনা প্রদান করেছিল। এই নিষেধাজ্ঞার সময়সীমা (১৪ ফেব্রুয়ারী) হতে আরো ২০ দিন বৃদ্ধি করা হয়েছে।

কমিউনিটি সেন্টার, রেস্তোরাঁ, হোটেল, খিমাসহ যে কোনো প্রোগ্রাম স্থলে কোনো ধরনের অনুষ্ঠান (বিবাহ, কোম্পানির এজিএমসহ এজাতীয় সব রকমের প্রোগ্রাম) আয়োজন আগামী ২০ দিনের জন্য নিষিদ্ধ থাকবে। দবে নিষিদ্ধের এই সময় আরো বাড়তে পারে।
২০ জনের অধিকসংখ্যক মানুষের উপস্থিতিতে যে কোনো ধরনের সামাজিক আচার-অনুষ্ঠান আয়োজন করা নিষিদ্ধ থাকবে। নিষিদ্ধের এই সময় আরোও বাড়তে পারে।

আগামী ২০ দিন যে কোনো ধরনের বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান আয়োজন করা নিষিদ্ধ থাকবে। নিষিদ্ধের এই সময় আরোও বাড়তে পারে। পাশা-পাশি যে কোনো ধরনের সিনেমা, বিনোদন প্রোগ্রাম, শপিংমলে/রেস্টুরেন্টে কিংবা অন্যত্র ইনডোর গেমস নিষিদ্ধ
থাকবে। তবে নিষিদ্ধের এই সময় আরোও বাড়তে পারে।

একই সময়ে রেস্টুরেন্টের ভেতরে কাস্টমারকে খাবার পরিবেশন নিষিদ্ধ থাকবে, এ সময় শুধু আউটসাইড ডেলিভারী চলমান থাকবে। এ সময় এমন কোনো অফার ঘোষণা করা যাবে না যাতে জনসমাগম ঘটতে পারে । নিষিদ্ধের এই সময় আরোও বাড়তে পারে।

এই নির্দেশনা বাস্তবায়ন করবে মিউনিসলিটি/বলদিয়া মিনিস্ট্রি, কোনো প্রতিষ্ঠানকে এই নির্দেশনা অমান্যের কারণে ২৪ ঘণ্টার জন্য বন্ধ করে দেওয়া হবে, পুনরাবৃত্তি ঘটলে ২ দিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হবে,যদি আবারো পুনরাবৃত্তি ঘটে এক সপ্তাহ, এরপর দুই সপ্তাহ, এরপর পুনরাবৃত্তি ঘটলে চার সপ্তাহের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হবে।

ইতোমধ্যে রিয়াদ, দাম্মাম, আল কাসিমসহ বিভিন্ন অঞ্চলের আমির/গভর্নররা এবং বিভিন্ন মন্ত্রণালয় তাদের আওতাধীন দফতরসমূহকে করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধ মেনে চলার জন্য কঠোরতা অবলম্বনের নির্দেশনা প্রদান করেছেন।

মোবাইলে তাওয়াক্কালনা এপ সক্রিয় করা ছাড়া কোনো শপিং মল কিংবা অফিসে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। এমতাবস্থায় প্রবাসী সব বাংলাদেশীকে তাওয়াক্কালনা এপ সক্রিয় করাসহ সৌদি নিয়মকানুন মেনে চলার জন্য বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষ থেকে
বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।