‘পাওয়ার অব অ্যাটর্নি’ নয় পারিবারিক আদালতের মামলায়

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ৯:৪৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০২১

অনলাইন ডেস্ক: পারিবারিক আদালতে মামলা চালানোর ক্ষেত্রে মূল ব্যক্তির অনুপস্থিতিতে অন্য কাউকে পাওয়ার অব অ্যাটর্নি দেওয়া যাবে না বলে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এ সংক্রান্ত একটি রিভিশন খারিজ করে মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) বিচারপতি একেএম আবদুল হাকিম, বিচারপতি মো.রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি কাজী ইবাদত হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত বৃহত্তর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী এম খালেদ আহমেদ। বিবাদী পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. সাইদুল আলম খান।

পরে সাইদুল আলম খান জানান, সিলেটের এক আমেরিকা প্রবাসী দম্পতির বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে। এরপর স্ত্রী তার প্রাক্তন স্বামীর বিরুদ্ধে পারিবারিক আদালতে ১৫/১৬ বছর আগে মামলা করেন; মামলায় তিনি তার প্রাক্তন স্বামীর কাছ থেকে ভরণপোষণ এবং তার দুই সন্তানের ভরণপোষণ দাবি করেন। সেক্ষেত্রে স্বামী তার পক্ষে মামলা করার জন্য একজন আত্মীয়কে পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি দেন। কিন্তু পাওয়ার অব অ্যাটর্নির প্রস্তাব নাকচ করে দেন সিলেটের পারিবারিক আদালত।

বিবাদী আপিল করলে সিলেট জেলা জজ আদালত আপিল খারিজ করে দেন। পরে তিনি হাইকোর্টে রিভিশন করেন। এ রিভিশন আবেদন বিচারপতি মো.রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি কাজী ইবাদত হোসেনের বেঞ্চে শুনানির জন্য ওঠে।

শুনানিতে কিছু আইনি সমস্যা দেখা দেওয়ায় আবেদনটি প্রয়োজনীয় আদেশের জন্য প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠানো হয়। রিভিশন আবেদনের শুনানির জন্য প্রধান বিচারপতি তিন বিচারপতির সমন্বয়ে বৃহত্তর হাইকোর্ট বেঞ্চ গঠন করেন। বিচারপতি একেএম আব্দুল হাকিম, বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি কাজী ইবাদত হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত বৃহত্তর বেঞ্চ একপর্যায়ে শুনানির জন্য চার সিনিয়র আইনজীবীকে অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে নিয়োগ দেন। তারা হলেন- জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এম আই ফারুকী, এএফ হাসান আরিফ, কামাল উল আলম ও প্রবীর নিয়োগী। তারা আদালতে তাদের মতামত দেন।

চূড়ান্ত শুনানির পর মঙ্গলবার বৃহত্তর বেঞ্চ স্বামীর রিভিশন আবেদন খারিজ করে দেন। ফলে পারিবারিক আদালতে মামলা দায়েরের ক্ষেত্রে মূল ব্যক্তির অনুপস্থিতিতে অন্য কাউকে পাওয়ার অব অ্যাটর্নি দেওয়া উচিত নয় বলে জানিয়েছেন আইনজীবী সাইদুল আলম খান।