চোখের সুস্থতায় মেনে চলুন ৭ নিয়ম

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ৬:০৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৬, ২০২১

স্বাস্থ্য  ডেস্ক: চোখের সুস্থতায় মেনে চলুন ৭ নিয়ম।চোখ আমাদের তখা মানবদেহের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ। চোখের আলো নিভে গেলে পুরো জীবনটা তথা পুরো পৃথিবীটায় হয়ে যাবে অন্ধকার। তাই যত্ন নিতে হবে চোখের।

অথচ,প্রতিদিনের কাজের চাপে আমাদের সবচেয়ে এবং অতি মূল্যবান চোখের-ই যত্ন নিতে ভুলে যাই। কিন্তু লাইফস্টাইলে বা অভ্যাসেএকটুখানি পরিবর্তন নিয়ে আসলেই চোখ সুস্থ থাকবে বলে জানান দিচ্ছেন চোক্ষু বিশেষজ্ঞরা। চলুন জেনে নেয়া যাক সে সব।

চোখে ঠান্ডা পানির ঝাপটা নেয়া: আমাদের প্রত্যেককেই কোনো না কোনো কারণে ইলেকট্রনিক ডিভাইসের দিকে বেশ অনেক সময়ই ধরে তাকিয়ে থাকতে হয়। এছাড়া, আমরা সারাদিনে অনেক সময় টিভিতেও প্রিয় অনুষ্ঠান দেখি। তার জন্যওতো তাকিয়ে থাকতে হয় টিভি স্ক্রিনের দিকে।আর এসব কিছুর ফলে সব চেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় আমাদের শরীরের অন্যতম ও অতিগুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ এই চোখের। বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন এবং বলছেন  টানা কাজের মাঝে কম্পিউটারের স্ক্রিন থেকে অন্তত-২০ মি: অন্তর-অন্তর চোখ সরিয়ে ঠান্ডা পানির ঝাপটা দিন।

চোখে সানগ্লাস ব্যবহার:সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির হাত থেকে চোখকে রক্ষা করতেই চশমা বা সানগ্লাস পরার পরামর্শ দিচ্ছেন চোক্ষু বিশেষজ্ঞরা। রোদে বের হলেই ইউভি প্রোটেকশনযুক্ত সানগ্লাস ব্যবহার করুন। যাতে করে সূর্যের প্রখর তাপ চোখে লাগতে না পারে।

খাবারের তালিকায় সাকসবজি:প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় পর্যাপ্ত পরিমানে শাকসবজি রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। কারন সবুজ শাকসবজি চোখের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী তাই। এছাড়াও প্রতিদিন টাটকা ফল খাওয়ার পরামর্শও দিচ্ছেন এই বিশেষজ্ঞরা তারা।

চোখ জুড়ানো সবুজ প্রকৃতির দিকে তাকানো:সকালে সবুজ প্রকৃতির দিকে তাকালে চোখ ভালো থাকে। অবশ্য এমন কথা আমরা ছোটবেলা থেকেই বাবা-মায়ের কাছে শুনে থাকি। চোখ সুস্থ রাখতে বয়সকাল পর্যন্ত আমাদের এ অভ্যাস ধরে রাখা প্রয়োজন।

চোখ পরিষ্কার হাতে স্পর্শ করা: চোখের চাপ কমানোর জন্য আপনার হাতই যথেষ্ট! তবে আগে দুটি হাত খুব ভালো করে ঘষে গরম করে নিন। এবার সেই গরম তালুর অংশ চোখের ওপর রাখুন। বড় শ্বাস নিন এবং নাক দিয়ে ধীরে ধীরে শ্বাস ছাড়ুন। ঘুমের সমস্যাও কমবে এ উপায়ে। তবে সবার আগে হাত পরিষ্কার করে নেবেন।

ধূমপান এড়িয়ে চলুন: চোখের সু-স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর ধূমপান। তাই নিয়মিত ধূমপানের ফলে দৃষ্টিশক্তি এতটাই ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়ে যে তা সমাধানের আর কোনো রাস্তাই থাকে না।

চোখ চেকআপ করা: চোখ সুস্থ এবং ভালো রাখার জন্য নিয়মিত চোখের চেকআপ করানোও দরকার। যাতে করে অল্প কোনো সমস্যা হলেও সাথে সাথেই চিকিৎসা করানো সম্ভব হয়। কারণ চোখের এমন বহু সমস্যাই আছে যেগুলো আগে থেকে বোঝা যায় না। আবার সমস্যা ঠিক সময়েই ধরা পড়লে চিকিৎসায় সুবিধা হয়।

 

সূত্র: এবিপিলাইভ