এসো ত্যাগের মহিমায় নিজে বদলাই বদলে দেই

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ২:৫৭ অপরাহ্ণ, মে ৪, ২০২২

এম.এ.জলিল রানা:আমাদের জীবন থেকে আরোও একটি পবিত্র মাহে রমাদানুল মোবারক ও ঈদ-উল ফিতর হারিয়ে গেল। দীর্ঘ একটি মাস সিয়াম সাধনার পর নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে উদযাপিত হয়ে গেল বিশ্ব মুসলিম উম্মার এ ধর্মীয় উৎসব।

পবিত্র মাহে রমাদানুল মোবারক ও পবিত্র ঈদ-উল ফিতরের গুরুত্ব ,তাৎপর্য এবং ফজিলত সম্পর্কে আমরা সকলেই কম বেশী জানি ও বুঝি।

আর এ ব্যাপারে নতুন করে ব্যাখ্যার প্রয়োজন আছে বলে আমার মনে হয় না। এখন প্রশ্ন হলো এ বিষয় গুলো আমরা জানি কিন্ত বাস্তবে মানি কয়জন। এসব বিষয়ে যারা পণ্ডিত বা বিষারদ যেমন: আলেম,ওলামা,হাফেজ ক্বারী,মুফতি মোহাদ্দিস এবং মুফাসসিরগন আর তিনারাতো সব সময় বলছেই।

তবে আমরা বাস্তবে এর কোন ফলাফল দেখতে পাচ্ছিনা কেন? মূল বিষয় হলো বলে কয়ে কেউ কাউকে ভালো করতে পারে না।যদি না সে নিজে নিজে পরিবর্তন না হয়। তাই এসো ত্যাগের মহিমায় নিজে বদলাই বদলে দেই।

 মাহে রমাদানুল মোবারক ও ঈদ-উল ফিতরের ত্যাগের মহিমায় ভরে উঠুক প্রতিটি মানুষের জীবন। পবিত্র মহে রমাদানুল মোবারকের শিক্ষায় আলোকিত হোক আমাদের জীবন। মুছেফেলি অনাচার ,অত্যাচার,পাপাচার আর লোভ লালসাকে,সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বদলে ফেলি পরিবার ,সমাজ এবং রাষ্ট্রকে।

ভেদাভেদ ভূলে যাই ধনী গরীবের,কাছে টেনে নেই অসহায়দের,খাবার তুলে দেই ক্ষুধাত্বদের মুখে, আনন্দ ভাগাভাগী করে নেই সবার সাথে।অটুট রাখি আত্বীয়তার বন্ধন,ফিরিয়ে দেই অধিকার বঞ্চিতদের সমধিকার। সচেষ্ট হই পিতা-মাতার হক আদায়ে।

পদ দলিত করি মিথ্যা অহংকার,সামনে সমউজ্জল  করে তুলে ধরি সত্যটাকে।গুনামাফ করে নেই নিজ নিজ জীবনের। বিশ্ব শান্তি কামনায় দুহাত বাড়িয়ে দেই স্রষ্ঠার দরবারে। বলি করেছি মোরা ভূল এখনি হয় মশগুল ক্ষমা চাহিবার তরে।

পরম করুনাময় আল্লাহ সুবহানাহুতায়ালা আমাদের সবায়কে পবিত্র রমদানুল মোবারক ও ঈদ-উল ফিতরের গুরুত্ব,তাৎপর্য এবং ফজিলত বুঝা এবং বাস্তব জীবনে প্রয়োগের মাধ্যমে তা আমলের তৌফিক দান করুন আমিন।