দক্ষিনাঞ্চলের ১০ জেলায় দেড় লাখ ছাড়ালো করোনা ভ্যাকসিন গ্রহীতার সংখ্যা

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 9:52 PM, February 17, 2021

মহসিন মিলন,যশোর: দেশের দক্ষিনাঞ্চলের ১০ জেলায় দেড়লাখ ছাড়ালো করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন (টিকা)
গ্রহীতার সংখ্যা। উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ভ্যাকসিন গ্রহণ উৎসবে মানুষের স্বতঃস্ফুর্ত অংশ গ্রহণের কারণে মাত্র ৯দিনে এ রেকর্ড অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।প্রতিদিনই বিপুল সংখ্যক মানুষ ভ্যাকসিন
গ্রহণ করছেন।

বিভাগের মধ্যে খুলনা জেলায় সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষ ভ্যাকসিন নিয়েছেন। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে যশোর।
বিভাগীয় স্বাস্থ্য কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তত্যে জানা যায়, গত ৭ ফেব্রুয়ারি উদ্বোধনের দিন থেকে (১২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার ব্যতিত) ১৬ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার পর্যন্ত খুলনা বিভাগের ১০টি জেলায় ১ লাখ ৫৩ হাজার ৭শ’ ৬৪জন ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন।

বিভাগের সর্বোচ্চ ৩৯ হাজার ৪শ’ ২১ জনকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে খুলনা জেলায়। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা যশোর জেলায় ১৬ হাজার ৫শ’ ৯০জন পুরুষ ও ৭হাজার ৫শ’ ৪৯জন নারী ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন।

অর্থাৎ জেলায় করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিন গ্রহীতার সংখ্যা ২৪হাজার একশ’ ৩৯জন। এর মধ্যে মঙ্গলবারই যশোরে ৩ হাজার ছয়শ’ ৪০ জনকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও গত ৯দিনে বাগেরহাটে ১৮ হাজার সাতশ ৭৭, ঝিনাইদহে ১৪ হাজার তিনশ’ দু’জন, কুষ্টিয়ায় ১৫ হাজার ৭শ’ ৮১, মাগুরায় ৯ হাজার একশ’ ১৮,নড়াইলে ৯ হাজার একশ’ ৪৮, সাতক্ষীরায় ৯ হাজার তিনশ’ ২৯, চুয়াডাঙ্গায় ৮ হাজার একশ’ ১৭ ও মেহেরপুরে ৫ হাজার ৫শ’ ৯৫জন ভ্যাকসিন নিয়েছেন।

যশোরের সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন জানিয়েছেন, স্বাস্থ্য বিভাগের কঠোর তদারকি ও গ্রহীতাদের আন্তরিক সহযোগিতায় ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হচ্ছে। কেন্দ্রে অনলাইন নিবন্ধনের সুযোগ আপাতত বন্ধ থাকলেও মানুষ নিজ উদ্যোগে সেটি সম্পন্ন করে নির্ধারিত কেন্দ্রে সময়মতো এসে ভ্যাকসিন গ্রহণ করছেন।

একই সাথে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলায় ভ্যাকসিন গ্রহণকারীদের মারাত্মক কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার খবর পাওয়া যায়নি। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত জেলার ৩৭ হাজার ৯শ’ ৮৪জন অনলাইন নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন।

তিনি আরও বলেন, এখন থেকে অনলাইন নিবন্ধনের সময় নির্দিষ্ট যে কেন্দ্রের নাম উল্লেখ করা হবে সেই কেন্দ্রে গিয়ে ভ্যাকসিন গ্রহণ করতে হবে। এর আগে সরকারি সিদ্ধান্ত ছিলো সফলভাবে নিবন্ধিতরা দেশের যেকোনো কেন্দ্রে গিয়ে ভ্যাকসিন গ্রহণ করতে পারবেন। এ সুবিধাটাও আপাতত স্থগিত করা হয়েছে।

যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভ্যাকসিন গ্রহণকারীদের মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্যদের মধ্যে রয়েছেন যশোর-২ চৌগাছা-ঝিকরগাছা আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির, যশোর মেডিকেল
কলেজ হাসপাতালের সাবেক তত্ত¡াবধায়ক ও যশোর ইনস্টিটিউটের সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ লিটু, দৈনিক লোকসমাজের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আনোয়ারুল কবীর নান্টু, বিরামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ইকবাল হোসেন, বিশিষ্ট মুদ্রণ ব্যবসায়ী তিতাস আহমেদ, ছাত্রলীগ নেতা ইমন শেখ প্রমুখ।

সিভিল সার্জন আরও জানিয়েছেন, মঙ্গলবার যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ভ্যাকসিন নিয়েছেন এক হাজার ৪শ’ ৩৭ জন। তাদের মধ্যে এক হাজার দুশ’ ৭৮জন পুরুষ ও একশ’ ৫৯ জন নারী রয়েছেন। পুলিশ হাসপাতাল থেকে একশ’ ৫৭ জন পুরুষ ও ৪৩ জন নারী পুলিশ সদস্য, বিমান বাহিনী ঘাঁটি বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান মেডিকেল স্কোয়াড্রনে ২০ জন পুরুষ ও আট জন নারী, যশোর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) থেকে একশ’ ১৩ জন পুরুষ ও সাত জন নারী টিকা গ্রহণ করেছেন।

এছাড়াও, অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে পুরুষ দুশ’ ও নারী একশ’ ৫০ জন, বাঘারপাড়ায় পুরুষ ৭৪ ও নারী ৪৬, চৌগাছায় পুরুষ একশ’ ২৭ ও নারী ৬৩ জন, ঝিকরগাছায় পুরুষ দুশ’ ৫৮ ও নারী একশ’ ৪৯ জন, কেশবপুরে পুরুষ একশ’ ২৫ ও নারী ৮৩ জন, মণিরামপুরে পুরুষ একশ’ ৫৫ ও নারী একশ’ ৭৫ জন এবং শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে পুরুষ দুশ’ ৬৭ ও একশ’ ২৬ জন নারীকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে।