দেশে পৌঁছালো মডার্নার ৩০ লক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২০, ২০২১

স্বাস্থ্য ডেস্ক:মডার্নার ৩০ লক্ষ ডোজ কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন  দেশে পৌঁছেছে। সোমবার রাত আনুমানিক  সাড়ে ৯টা নাগাদ যুক্তরাষ্ট্র থেকে কাতার এয়ারলাইন্সের কিউআর(৮৬৩৪ ফ্লাইটে এসব ভ্যাকসিন ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়।পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা এ সব তথ্য জানিয়েছেন।

 

ভ্যাকসিনের  বৈশ্বিক উদ্যোগ কোভ্যাক্সের মাধ্যমে এ ভ্যাকসিন পেয়েছে বাংলাদেশ। মূলত কোভ্যাক্সের মাধ্যমে মডার্নার মোট ৫০ লক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে।

 

মডার্নার ৩০ লক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন সোমবার সকালে পৌঁছার কথা ছিল। কিন্তু ফ্লাইটের শিডিউল বদলে যাওয়ার কারণে ঠিক সময়ে আসতে পারেনি।

ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালসের-১৮টি ফ্রিজার ভ্যানে এ ৩০ লক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন নিয়ে যাওয়া হবে। আর এর মধ্যে-১৫টি ফ্রিজার ভ্যান যাবে ধামরাই সংরক্ষণাগারে এবং বাকি তিনটি যাবে তেজগাঁওয়ের ইপিআই সংরক্ষণাগারে।

 

কোভ্যাক্সের মাধ্যমে এবং সরাসরি বিভিন্ন দেশের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বরাদ্দ হওয়া ৩ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন তালিকায় বাংলাদেশও রয়েছে ।গেল ২২ জুন হোয়াইট হাউস করোনা টিকার বৈশ্বিক উদ্যোগ কোভ্যাক্সের মাধ্যমে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার ৮টি দেশের পাশা-পাশি এশিয়ার-১৮টি দেশকে নতুন করে ১ কোটি ৬০ লক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। এছাড়াও বিশ্বের আরও ৩০টি দেশ ও জোটকে যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি যে ১ কোটি ৪০ লক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন দেবে-আর  সেই তালিকায়ও রয়েছে বাংলাদেশের নাম।

 

গত-৩ জুন হোয়াইট হাউস আড়াই কোটি টিকা বণ্টনের ঘোষণা দিয়েছিল। আর তাতেও এশিয়ার দেশগুলোর জন্য-৭০ লাক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন দেওয়ার কথা বলা হয়। আর সেখানেও রাখা হয়েছে বাংলাদেশকে ।

 

যুক্তরাষ্ট্র তার মজুদ থেকে যে ভ্যাকসিন সরবরাহ করবে, তা হবে ফাইজার-মডার্না এবং জনসন অ্যান্ড জনসনের উৎপাদিত। কিন্তু মার্কিন খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনের এফডিএ-অনুমোদন পেলে এ তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার উৎপাদিত নোভেল করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিনও ।