নাটকীয়তার পর শেষ পর্যন্ত ওমানে পৌঁছাল টাইগাররা

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ১১:৩৭ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৪, ২০২১

খেলাধুলা: নাটকীয়তার পর শেষ পর্যন্ত ওমানে পৌঁছাল টাইগাররা। বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে অংশ নিতে বাংলাদেশ দল ওমান পৌঁছেছে। টাইগার বাহিনী ৪ অক্টোবর সোমবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে ওমানের রাজধানী মাসকাটে পৌঁছায়।

টিম টাইগার্স বিশ্বকাপ মিশনে যাবে । গণমাধ্যম থেকে শুরু করে বিমানবন্দরে সমর্থকদের ভীড়। তবে বিশ্বকাপ যাত্রা নিয়ে বিকেল থেকেই অনেকটাই ছিল শঙ্কা।প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে ওমান। সাইক্লোন শাহীনের জন্য স্থগিত মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সব ফ্লাইট । তারপরও শিডিউল অনুযায়ী একের পর এক বিমানবন্দরে আসতে শুরু করেন ক্রিকেটাররা। তবে হঠাৎই খবর টাইগারদের ওমান যাওয়ার ফ্লাইট বাতিল। ক্রিকেটারদের অনেকেই ফিরে যান মাঝপথ থেকে।

আবার কিছুক্ষণের মধ্যেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হয়। রাতেই বাংলাদেশ টিম ওমান যাবে । কেটে যায় অনিশ্চয়তা। আবারো বিমানবন্দরমুখী টিম টাইগার্স। প্রথমবারের মতো ৬ ক্রিকেটার যাচ্ছেন বিশ্বকাপ খেলতে। প্রথম বিশ্ব আসর অধিনায়ক হিসেবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদেরও

৩ অক্টোবর রোববার রাত পৌনে ১২টা নাগাদ  ওমানের উদ্দেশে বিমানে উঠেন মাহমুদউল্লাহ বাহিনী। আবার ওমানে ১দিনের কোয়ারেন্টাইনেও থাকতে হবে লাল-সবুজের জার্সিধারীদের। দেশ ছাড়ার আগে বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ যাত্রা নিয়ে নাটকের ইয়াত্তা নেই । ঘূর্ণিঝড় ‘শাহিন’র কারণে ওমানের মাসকাট বিমানবন্দরের সব ফ্লাইট বাতিল হওয়ায় টিম টাইগার্সের বিশ্বকাপ যাত্রা নিয়ে চরম অনিশ্চয়তা তৈরী হয়েছিল ।

সন্ধ্যা আনুমানিক সাড়ে ৭টায় মিরপুরের ক্রিকেট একাডেমি থেকে বিমানবন্দরের উদ্দেশে রওনা হন মাহমুদউল্লাহ বাহিনী। সেখানে গিয়ে তারা জানতে পারে, ফ্লাইট ১দিন পিছিয়ে গেছে। এরপর ক্রিকেটাররা বিমানবন্দর ত্যাগকরতেই নতুন খবর জানানো হয়, নির্ধারিত সময়েই ছাড়বে বিমান। অনন্যোপায় হয়ে সবাই আবারও ফিরে আসেন বিমানবন্দরের উদ্দেশ ।এত নাটকীয়তার  পর শেষ পর্যন্ত বিমানে উঠেছেন টাইগাররা।

বিশ্বকাপ খেলতে দেশ ত্যাগের আগে টাইগার কাপ্তান মাহমুদউল্লাহ গণমাধ্যমকে জানান, সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।  বিগত সিরিজগুলো যেভাবে আমরা খেলেছি, সেভাবেই দল হিসেবে যদি খেলতে পারি তাহলে আশা করি ভালো কিছুই হবে। তিনি আরও জানান, আমরা চেষ্টা করব বাছাইপর্বে ঠিকভাবে উতরে মূল পর্বে যেতে। যত বেশি সম্ভব ম্যাচ জেতা যায় সেই আমাদের সেচেষ্টেই থাকবে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আমাদের আগের রেকর্ড ভালো নাহলেও এবার চেষ্টা থাকবে নতুন করে রেকর্ড গড়ার।

ওমানে এক টানা ৪ দিনের অনুশীলনের পর ৮ অক্টোবর ওমান ‘এ’ দলের বিপক্ষে ম্যাচ খেলবে ডমিঙ্গোর শিষ্যরা। আর এরপর ৯ অক্টোবর সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাবে বাংলাদেশ দল। সেখানেও তাদেরকে ১ দিনের রুম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এর পর-১১ অক্টোবর থেকে পুনরায় শুরু হবে অনুশীলন।

সাকিব আর মোস্তাফিজ অবস্থান করছেন আরব আমিরাতে। লিটন আগেই গেছেন ওমানে। বিশ্বকাপ স্কোয়াডের বাকি-১২ ক্রিকেটারসহ স্ট্যান্ডবাই দুইজন গেছেন ওমানে। আর  সেখানে যোগ দেবেন কোচিং স্টাফের সদস্যরাও। তবে ওমানে পৌঁছে ১দিনের কোয়ারেন্টাইনের পর কোভিড-১৯ নেগেটিভ হওয়া সাপেক্ষে মাঠে নামবেন বাংলাদেশ দল।