ভ্যাকসিন এখন কুর্মিটোলায়

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 2:41 PM, January 27, 2021

ওয়েব ডেস্কঃ বেলা সোয়া ১১টার দিকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে  পৌঁছেছে করোনার ভ্যাকসিন।২৫ জন সম্মুখযোদ্ধা প্রথম দিন
টিকা পাবেন ।(২৭ জানুয়ারি) বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টায় গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালী যুক্ত হয়ে
করোনার এ টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন।

বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথম কোভিড-১৯করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন গ্রহণ করবেন কুর্মিটোলা জেনারেল
হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু বেরোনিকা কস্তা। সেই সাথে টিকা নেওয়ার কথা রয়েছে আরও দুজন সিনিয়র স্টাফ
নার্স মুন্নী খাতুন ও রিনা সরকারের।

এরপর ওই দিনই আরো ২৫ জনকে দেওয়া হবে করোনার টিকা। ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, সাংবাদিক, পুলিশ ও আর্মি এদের
মধ্যে ৫ জনের টিকা দেওয়া দেখবেন প্রধানমন্ত্রী যারা এ টিকা পাবেন।

এছাড়াও চিকিৎসক হিসেবে প্রথম ভ্যাকসিন নেবেনে মেডিসিন কনসালটেন্ট ডা. আহমেদ লুৎফর মবিন। ভ্যাকসিন প্রদানের
জন্য ভ্যাকসিনেটর হিসেবে সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনা আক্তার ও দীপালি ইয়াসমিনের নাম রয়েছে।

এবিষয়ে রুনু বেরোনিকা গণমাধ্যমকে জানান, হাসপাতাল পরিচালক ডেকে পাঠিয়েছেন তাকে। কিন্তু প্রথম টিকাগ্রহীতা
হিসেবে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে অনুভূতি জানাতে রাজি হননি।

এদিকে ৭ ফেব্রুয়ারী সারাদেশে একযোগে করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু হবে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।
বিকেলে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভ্যাকসিন প্রদান কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা জানান।
দেশে করোনা প্রতিরোধে শুরু থেকেই নিবেদিত ছিল কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল। তাই মহামারী থেকে বাঁচতে বহুল
প্রতীক্ষিত টিকাদান কর্মসূচিও শুরু হচ্ছে এই হাসপাতালটি থেকেই।

৫ জনের দেহে টিকা প্রয়োগ সরাসরি দেখবেন প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে। উদ্বোধনীর দিনে
টিকা পাবেন মোট ২৫ জন।পরেরদিন রাজধানীর ৫টি হাসপাতালে ৫০০ স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর টিকা প্রয়োগ করা হবে এবং ৭
ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে একযোগে টিকাদান শুরু হবে।স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেল, বুধবার প্রধানমন্ত্রী টিকাদান কর্মসূচি উদ্বোধনের
পর সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে শুরু হয়ে যাবে টিকা নেওয়ার নিবন্ধন প্রক্রিয়াও।তবে যারা App-এ নিবন্ধন করতে পারবেন
না, তারা জেলা উপজেলা-স্বাস্থ্যকেন্দ্রে গিয়েও নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন।

এদিকে ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর ভারতের সেরাম থেকে বেক্সিমকোর কেনা অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার তিন কোটি
ডোজের প্রথম লটের ৫০ লাখ ডোজের ছাড়পত্র দিয়েছে।

এ ছাড়াও টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিলে সব রকমের প্রস্তুতি রয়েছে বলেও জানিয়েছে অধিদফতর।