আমার কাছে মানুষের জীবন সব থেকে বড়: প্রধানমন্ত্রী

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 7:01 PM, February 10, 2021

বিশেষ প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, করোনাভাইরাসের টিকা আনা নিয়ে যারা সমালোচনা করেছেন, তাদের কথায় গুরুত্ব দেওয়ার কিছু নেই।সবচেয়ে বেশি মানুষের জীবনকে গুরুত্ব দিয়েই সরকার টিকা আনার পদক্ষেপ নিয়েছে।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন।

সরকারপ্রধান বলেন, আমরা ইতোমধ্যে করোনার টিকা দেওয়া শুরু করেছি, অনেক কথা শুনতে হয় আমাদের।এসব কথায় কান দিলে চলে না।অনেকেই তো বলেছিলেন,বাংলাদেশে ভ্যাকসিন আসবে না।অনেক উন্নত দেশও কিন্তু আনতে পারেনি।আমি কিন্তু কোনোদিকে তাকাইনি।আমার কাছে মানুষের জীবন সব থেকে বড়।

যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা বাংলাদেশের দ্রুত করোনার টিকা পাওয়া নিশ্চিত করতে তার সরকারের চেষ্টার কথা তুলে ধরেন এবং বলেন, আমি যখন প্রথম ভ্যাকসিনের জন্য টাকা দিই, এক হাজার কোটি টাকা আলাদা রেখে। আমি সঙ্গে সঙ্গে অ্যাডভান্স করে দিয়েছিলাম যে যখনই ভ্যাকসিন তৈরি হবে এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যখনই অনুমোদন দেবে,সবার আগে যেন বাংলাদেশ পায় এবং আজকে সেটা প্রমাণিত।

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে কেনা ৩ কোটি ডোজ টিকার মধ্যে ৫০ লাখ ডোজ ইতোমধ্যে দেশে এসেছে। এছাড়া ভারত সরকার উপহার হিসেবে আরও ২০ লাখ ডোজ টিকা পাঠিয়েছে।সবমিলে ৭০ লাখ ডোজ টিকা এসেছে বাংলাদেশে,ইতোমধ্যেই প্রয়োগ শুরু হয়ে গেছে।

প্রধানমন্ত্রী ভ্যাকসিন উপহার দেওয়ায় ভারত সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এখন আরও অনেকেই দিতে চাচ্ছেন। কিন্তু আমাদের যেটা প্রয়োজন, আমরা কিন্তু নিয়ে এসেছি।শুরুতে টিকা নিয়ে অনেকের মধ্যে কিছুটা দ্বিধা থাকলেও এখন তা কেটে গেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

যুবলীগের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখানে যুবলীগের একটা দায়িত্ব আছে। বিশেষ করে আমরা বলেছি যে ৪০ বছরের উপরে যারা, আর বিশেষ করে শিক্ষক থেকে শুরু করে অন্যান্য যারা সব সময় মানুষের পাশে কাজ করতে হয়, তাদেরকে আগে দিতে হবে।মানুষের মাঝে এই ভয়টা দূর করতে হবে।সবাই যেন ভ্যাকসিনটা নেয়, সেই ব্যবস্থা করে মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী টিকা নেওয়ার পরেও সবাইকে মাস্ক ব্যবহারের পরামর্শ দেন।আরও বলেন, সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষার নিয়মগুলো মেনে চলতে হবে। মাস্ক ব্যবহার করতে হবে, হাত পরিষ্কার রাখতে হবে এবং সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে।এটা সবাইকেই নজরে রাখতে হবে এবং এটা যুবলীগ করবে, সেটা আমি চাই।

শেখ হাসিনা অনুষ্ঠানে যুবলীগের নতুন নেতৃত্বকে অভিনন্দন জানান।জাতির পিতার নেতৃত্বে সব সময় সব আন্দোলনে তরুণরা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই তরুণদের হাত ধরেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা আমরা গড়ে তুলব ইনশাআল্লাহ।সেইসাথে তিনি তাগিদ দিয়েছেন তরুণদের প্রস্তুত হওয়ার।