বদলগাছীতে প্রার্থী যাচাই-বাছাই, নির্বাচন অফিসারের বিরুদ্ধে স্বাস্থ্যবিধি ও আচারণবিধি নামানার অভিযোগ:

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ১১:৫৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০২১

প্রতিনিধি বদলগাছী (নওগাঁ) :করোনা মহামারীতে নওগাঁর বদলগাছী উপজেলায় তৃতীয় ধাপে ৮টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের যাচাই-বাছাই কার্যক্রমে নেই কোনো স্বাস্থ্যবিধি। প্রার্থীরা আচারণবিধি লংঘন করলেও কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি প্রশাসন ও রিটানিং অফিসারা।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানাগেছে, বদলগাছী উপজেলা তৃতীয় ধাপে ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন সম্পূর্ণ করার জন্য ৪ জন রির্টানিং অফিসার নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। সরকারি বিধিমতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুইটি করে ইউনিয়ন পরিষদের জন্য ১টি করে রির্টানিং অফিসার নিযোগ দেয়া হয়েছে।

জানাযায়, দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত ১টি রিটানিং কর্মকর্তা দুইটি করে ইউনিয়নের প্রার্থীদের যাচাইবাছাই কার্যক্রম পরিচালনা করার কথা থাকলেও। উপজেলা নির্বাচন অফিসার উপজেলা পরিষদ আডিটরিয়ামে ৮টি উনিয়নের প্রার্থীদের যাচাই-বাছাই কার্যক্রম এক সাথে পরিচালনা করেছে।

যাচাই-বাছাইএ নেই কোন স্বাস্থ্যবিধি। বিভিন্ন চেয়ারম্যান প্রার্থীরা মোটরসাইকেলের মহড়া দিয়ে আসতেছে উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে। প্রার্থীরা নির্বাচনী আচারণবিধি অমান্য করলেও তাঁদেও বিরুদ্ধে আইনানুগ কোন ব্যবস্থা না নিয়েই করেছে প্রার্থীদে কাগজপত্র যাচাই-বাছাই।

সরেজমিনে গিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় দেখা যায়, উপজেলা পরিষদ আডিটরিয়াম রুমে নির্বাচনী আচারণবিধি ও স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে ৮টি ইউনিয়ন পরিষদে প্রার্থীদের কাগজ পত্র যাাচাই-বাছাই কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে প্রার্থীদের সাথে উপস্থিত হয়েছে প্রায় ৬ থেকে ৭ হাজার লোক। চেয়ারম্যান প্রার্থীরা মোটরসাইকেলের শোডাউন দিয়ে আসছে উপজেলা পরিষদ আডিটরিয়াম রুমে। বদলগাছী উপজেলা পরিষদের সামনে সড়কে বিভিন্ন প্রার্থী মোটরসাইকেল শো-ডাউন নিয়ে আসতে দেখা গেছে। প্রার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি ও আচারণবিধি লংঘন করলেও উপজেলা নির্বাচন অফিসার, রিটানিং অফিসার ও প্রশাসন থেকেছে নিরব।

প্রার্থী যাচাই-বাছাই এ আসা মাহাবুব, রহমান, সবুজ,আরজানসহ বেশ কিছু ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, বর্তমান সারাবিশ্বে করোনা মহামরী প্রকপের কারনে বংলাদেশ সরকার জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য বারবার অনুরোধ করতেছে। কিন্তু আজ এই করোনা মহামারীর মধ্যেই একই স্থানে ৮টি ইউনিয়নের প্রায় ৫ থেকে ৭ হাজার লোকের সমাগমের মধ্যে দিয়ে প্রার্থী যাচাই-বাছাই করলেন উপজেলা নির্বাচন অফিসার । তারা আরো বলেন, আগে আমারা দেখেছি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন পরিচালনা করার জন্য দুইটি করে ইউনিয়নের জন্য ১ টি করে রিটানিং অফিসার নিয়োগ দিয়ে প্রার্থীদের মনোনয়ন ফরম উত্তলোন, জমা ও যাচাই-বাছাই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কিন্তু আজ দৃশ্য দেখলাম তার উল্টোটা। এখানে মানা হয়নি কোন স্বাস্থ্যবিধি ও নির্বাচনের আচরণবিধি। নির্বাচনি আচরণবিধি ও স্বাস্থ্যবিধি লংঘন করে এই উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে ৮টি ইউনিয়নেরে প্রার্থী সহ প্রায় ৬ থেকে ৭ হাজার লোক সমাগম করে যাচাই-বাছাই পরিচালনা বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি কোন মন্তব্য করতে রাজি নই।