বিদায়ের শেষ বেলার শেষান্তে-বিদায়ী অভিনন্দন-২০২০ কে

CNNWorld24
CNNWorld24 Dhaka
প্রকাশিত: 6:02 PM, December 31, 2020

রানা চৌধুরী: দেখতে দেখতে বিদায়ের শেষ বেলার শেষান্তে পৌছে গেছে ইংরেজী বর্ষ ২০২০। তাই তাকে আবারো বিদায়ী অভিনন্দন। এখন শুধু অপেক্ষার প্রহর গুনছে সবায় বরণ করে নিতে শুভ ইংরেজী নববর্ষ
২০২১।গোটা দূনীয়া যাকে এক দিন শুভ ইংরেজী নববর্ষ হিসেবে বরণ করে নিয়েছিল।সময়ের ফ্রেমে বাঁধা-
সেই ৩৬৫ দিনের সমন্বয়ে একটি বছর এখন অতীতের স্বরণীকায় লীপিবদ্ধ হতে চলেছে।

দূনীয়াব্যপী কোভিড-১৯ এর মহামারী উৎত্তাপের কারনে ২০২০ সালটি ছিল অত্যান্ত উৎকন্ঠার এবং
উদ্বেগের।আমরা বুঝতেই পারলাম না,আমাদের জীবন থেকে কিভাবে এতো দ্রুত-৩১ কোটি-৫ লাখ-৩৬
হাজার সেকেন্ড এর সমন্বয়ে-৫ লাখ ২৫ হাজার-৬০০ মিনিট এবং সব মিলিয়ে-৮ হাজার-৭৬০ ঘন্টা হাড়িয়ে
গেল।ভাবলেই বুকে মোচর কাটে।

পৃথিবীর সব সম্পদের বিনিময়ে ফেলে আসা দিনগুলো থেকে একটি সেকেন্ডও
আর ফিরে আনা অসম্ভব। অথচ হড়িয়ে যাওয়া এই বছর জুড়ে বিশ্বব্যাপী অগনীত নিষ্পাপ নব জাতক
দূনীয়ার আলো দেখেছে।যার ফলে এ ধরণীতে হাজারো ভালো মানুষের আবির্ভাব ঘটেছে।আবার উত্থান হয়েছে
অসংখ্য ভালো কাজের।পাশা-পাশী পতন হয়েছে অনেক অসত্যের। বিলুপ্ত হয়েছে অসংখ্য মন্দের,এ সময়ের
মাঝে আবার ঘটে গেছে হাজারো রকমের বহুমাত্রিক অন্যায় ,অপরাধ ,অনিয়ম এবং দূর্ণীতি।

গবেষণার উৎকর্ষের মধ্যে দিয়ে সাধিত নানা প্রযুক্তির।বিকশিত হয়েছে সীমাহিন সুপ্ত প্রতিভার। আবার ক্ষমতার মসনদে
বসেছে অনেক ক্ষতাধর।সবকিছু মিলে-মিশে সৃষ্টি জগতে সবার কল্যাণে স্রষ্ঠা যা করেছেন তা ভালোই করেছেন
এবং যা করছেন তাও ভালোই করছেন।আশাবাদী আগামীতে এ ধরনীর সুখের তরে পরম করুণাময় যাহা
কিছু করবেন তাহা নি:সন্দেহে ভালোই হবে।

বিগত দিনে আমরা যা চেয়েছি হয়তো তা পাইনি,আর যা পেয়েছি
তা হয়তোবা কখনো কল্পনাও করিনি।যা হাড়িয়েছি তা ফিরে পাবার নয় আর যা পেয়েছি সে ঋণ কোন দিন
পরিশোধের নয় এবং আমরা যে বেঁচে আছি ভালো আছি এটাতো অকল্পনীয় একান্ত অনুগ্রহ।তাই আমাদের
সবার উচিৎ প্রতিটি মূহুর্তে সেই মহান প্রতিপালকের শুকরিয়া আদায় করা,প্রতিটি নিশ্বাসে-প্রশ্বাসে আমরা যাঁর
দয়া,কুদরাত,অনুগ্রহ এবং সীমাহিন মু-বিশাল মহিমা ভোগ করে চলেছি।

তাই আমাদের করনীয় ফেলে আসা
বিগত মন্দ অতীত ভূলে না গিয়ে তা থেকে শিক্ষা নিয়ে জীবনের প্রয়োজনে আত্ব শুদ্ধি অর্জন করা এবং
বিদায়ী দিনের ভালোটাকে আঁকড়ে ধরে জীবন সংগ্রামে এগিয়ে যাওয়া। মহান স্রষ্ঠা আমাদের সহায়
হবেন।(সবার মঙ্গলময়ে আমরা সবায় হই বদ্ধ পরিকর-আমরা সবায় সবার আপন কেহ নহি কারো পর)।
লেখক:সিনিয়র সাংবাদিক এবং কলামিষ্ট।