সিরাজগঞ্জে প্রতিমা তৈরীর কাজে ব্যস্ত সময় পার করছে কারিগড়রা

Desk Reporter
Desk Reporter
প্রকাশিত: ৪:৩৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৪, ২০২১

আমিনুল ইসলাম,সিরাজগঞ্জ :সিরাজগঞ্জে শুরু হয়েছে প্রতিমা তৈরীর কাজ। দিনরাত কাজ করছে সিরাজগঞ্জের ভদ্রঘাট পালপাড়ার প্রতিমা কারিগড়রা। আগামী ১২ অক্টোবর শুরু হবে দুর্গোৎসব। জেলার ৯টি উপজেলায় এবছর ৫৩৬টি পুঁজা মন্ডপে দুর্গা পুঁজা অনুষ্ঠিত হবে। আর শারদীয় দুর্গাৎসবকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জেলা পুঁজা উৎযাপন পরিষদ। আর পুঁজার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত নিচ্ছিন্দ্র নিরপত্তার জন্য কাজ করছে সিরাজগঞ্জ জেলা পুলিশ।

সিরাজগঞ্জের ভদ্রঘাট পালপাড়ায় ইতোমধ্যে পাবনা,নাটোর,বগুড়া,টাঙ্গাইলসহ বিভিন্ন জেলা থেকে প্রচুর প্রতিমা তৈরীর অর্ডার এসেছে। আর সেই মোতোবেক কাজ করছে পালপাড়ার কারিগড়রা। বংশ পরম্পরায় পুরসরা কাজ করলেও তাদের সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে কাজ করছে বাড়ির নারীরা। রাত-দিন পরিশ্রম করে প্রতিমাগুলোকে ইতোমধ্যে সরবরাহ করার উপযোগি করে তোলা হয়েছে। দূর্গা,গণেশ,কার্তিক,সহ বিভিন্ন দেববদেবীর প্রতিমা ইতোমধ্যে শোভা পেতে শুরু করেছে পালপাড়ার বাড়িগুলোতে। এখন চলছে শুধু রং তুলির শেষ আঁচড়ের কাজ। তবে বাঁশ,পাট,কাঠ,মাটিসহ প্রতিমা তৈরীর জিনিসপত্রের মুল্য বৃদ্ধিরসহ মহামারি করোনার কারণে কারিগড়দের লাভের মুখ তেমন একটা দেখছেন না বলেই কারিগড়দের দাবি। তাদের মতে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা পেলে প্রতিমা তাদের জীবন-জীবিকা আরো ভালো ভাবে পরিচালনা করতে পারবে।

 

সিরাজগঞ্জ জেলা পুঁজা উৎযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক সট-সঞ্জয় সাহা,জানান,এবারে শ্বরদীয় উৎসবকে সুন্দর ও সফল করতে তারা ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। জেলার ৯টি উপজেলায় এবছরে ৫৩৬টি পুঁজা মন্ডপে এ উৎসব একযোগে পালিত হবে। তিনি আরো জানান তাদের উৎসবকে নিরাপত্তা বলয়ে রাখতে পুলিশ বিভাগ কাজ করে যাচ্ছে। তবে মহামারি করোনার কারণে আলোকসজ্জা কম থাকাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পুজার কাজ সম্পন্ন হবে।

 

সিরাজগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম জানান, এবারে দুর্গা পুঁজার শুরু থেকে বিসর্জন পর্যন্ত সনাতন ধর্মীদের উৎসবকে উচ্ছোসিত ও সফল করতে পুলিশ বিভাগ কাজ করছে। ইতোমধ্যে জেলার সর্ববৃহৎ প্রতিমা তৈরীর স্থান ভদ্রঘাট পালপাড়াতে পুলিশ চেকপোষ্ট বসিয়ে প্রতিদিন পুলিশ টহল জোরদার করা হয়েছে। যেকোন নাশকতাসহ সকল প্রকার সহিংসতা এড়াতে পুলিশ তৎপর আছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা। এদিকে সিরাজগঞ্জ সনাতন ধর্মিরা মনে করছেন ধর্ম যার যার, উৎসব সবার এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জেলায় সুষ্ঠ, শান্তিপুর্ণ ও উৎসব মুখর ভাবে দুর্গাপুজা সম্পন্ন করা হবে। #